সেরাম ইন্সটিটিউটের সাথে চুক্তি সত্ত্বেও বাংলাদেশের করোনা টিকা পাওয়া নিয়ে সংশয়!

সোমবার (৪ জানুয়ারি) সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন,বাংলাদেশে সেরাম ইন্সটিটিউটের করোনার টিকা রপ্তানীর চুক্তি বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কিছু জানেনা বলে তাদের জানানো হয়েছে। এর ফলে সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে চুক্তি থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশকে এই টিকা পেতে অপেক্ষায় থাকতে হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এর আগে আরো কয়েকমাস অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা রপ্তানিতে সেরাম ইনস্টিটিউটকে অনুমতি দেবে না ভারত সরকার। এক সাক্ষাৎকারে এমন তথ্য জানিয়েছেন সিরাম ইনস্টিটিউটের সিইও আদর পুনাওয়ালা। বার্তা সংস্থা এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম এ খবর দিয়েছে। বলা হয়েছে, স্থানীয় চাহিদা পূরণের ব্যাপারে জোর দিচ্ছে ভারতীয় কতৃপক্ষ।

আদর পুনাওয়ালা এএফপিকে বলেছেন, ভ্যাকসিনের জরুরি অনুমোদন দিয়েছে ভারতীয় কতৃপক্ষ। কিন্তু শর্ত হচ্ছে ভ্যাকসিন রপ্তানি করা যাবে না। যাতে আগে ঝুঁকিতে থাকা ভারতীয় জনগণের সুরক্ষা নিশ্চিত করা যায়। প্রাইভেট মার্কেটে ভ্যাকসিন বিক্রির অনুমতি দেয়া হয়নি বলেও জানান তিনি। এখন শুধু সরকারের কাছেই ভ্যাকসিন বিক্রি করতে হবে।

অবশ্য বিষয়টি আলোচনার ভিত্তিতে সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *