সিডনির লাকেম্বায় ঐতিহ্যবাহী মেজবান ১৬ ফেব্রুয়ারি

মেজবান বাংলাদেশের বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের বহুমাত্রিক ঐতিহ্যবাহী একটি ভোজের অনুষ্ঠান। ফারসি মেজবান শব্দের অর্থ অতিথি আপ্যায়নকারী এবং মেজবানি শব্দের অর্থ আতিথেয়তা বা মেহমানদারি। চট্টগ্রামের ভাষায় একে মেজ্জান বলা হয়। কারো মৃত্যুর পর কুলখানি, মৃত্যুবার্ষিকী, শিশুর জন্মের পর আকিকা, জন্মদিবস উপলক্ষে, ব্যক্তিগত সাফল্য, নতুন কোনো ব্যবসা আরম্ভ, নতুন বাড়িতে প্রবেশ, পরিবারে আকাঙ্ক্ষিত শিশুর জন্ম, বিবাহ, খৎনা, মেয়েদের কান ছেদন এবং ধর্মীয় ব্যক্তির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মেজবানির আয়োজন করা হয়। এছাড়া নির্দিষ্ট উপলক্ষ বা কোনো শুভ ঘটনার জন্যও মেজবান করা হয়। ঐতিহাসিকভাবে মেজবানি একটি ঐতিহ্যগত আঞ্চলিক উৎসব যেখানে অতিথিদের সাদা ভাত এবং গরুর মাংস খাওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়। অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতেও প্রতি বছর বিভিন্ন সংগঠন মেজবানের আয়োজন করে থাকে৷ তবে বেশিরভাগ বাংলাদেশী মানুষের আবাস লাকেম্বায় এই প্রথম মেজবান আয়োজন করা হচ্ছে৷ নামমাত্র মূল্য দিয়ে আপনারা মেজবানে অংশ নিতে পারবেন৷ মাত্র ৮ ডলার জনপ্রতি খরচ করে শুধুমাত্র অনলাইনের এই লিংকে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে৷ ১৬ ফেব্রুয়ারির মেজবানে আয়োজক গ্লোবাল বিজনেস ও কালচারাল এসোসিয়েশনের  পাশাপাশি সহযোগী হিসেবে থাকছে, সিডনী প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল, সিডনী প্রেস ক্লাব , অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ প্রেস এন্ড মিডিয়া ক্লাব , ইএসআই গ্লোবাল সার্ভিস, স্টার ট্রেনিং, সালেহ ইবনে রাসুল,এবাসকা,সোলার ওয়ার্ল্ড,লবস্টারটেইল,বিএস এডুকেশন সার্ভিস,কাউরান বাজার, অ্যাপোলো ইন্টারন্যাশনাল সহ বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান৷ টিকেট নিশ্চিত করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন৷ http://esiglobal.com.au/event/event/mezzainne-khana/ এই অনুষ্ঠানের আকর্ষণ হিসেবে থাকছেন চট্টগ্রামের ফেসবুক সেলিব্রেটি মোহাম্মদ আলী রাশেদ, এই অনুষ্ঠানের মিডিয়ার মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকবেন স্বাধীন কন্ঠ ৷ ২১-০১-২০২০ ইং

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *