সাকিবকে নিয়ে ফেসবুকে যা লিখছে ক্রিকেটভক্তরা!!

আলোচনা এবং সমালোচনায় সরগরম থাকে ক্রিকেট পাড়ায় সাকিবকে ঘিরে।সাকিব যখন সেঞ্চুরি করে তখন উত্তেজনার চরম হয় আর সাকিব যখন ভুল করে তখন তাকে গালি দিতেও ভুলেনা ক্রিকেটভক্তরা। এমন কেন সমাজ।জুয়াড়িরা সাকিবকে প্রস্তাব দিয়েছে কিন্তু সে প্রস্তাবে রাজি হয়নি সাকিব সেটি আইসিসিকে না জানানোই গত দুই বছর আগের ঘটনা আজকে পুনরাবৃত্তি হলো সাকিবকে নাকি বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ নিয়ে ক্রিকেটভক্তরা মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানান ফেসবুকে। পক্ষে-বিপক্ষে লিখছেন ফেসবুক প্রেমীরা।সুজন বিশ্বাস একজন ক্রিকেট ভক্ত বললেনঃএত তারাতরি আমরা অকৃতজ্ঞ হয়ে যায়!সেই দেশের মর্যাদা বাড়িয়েছে। উজ্জ্বল মিত্র নামের একজন লিখেছেনঃশালা যে বেতন পায় এরপর বলে বেতন বাড়াতে। দেশের মানুষ আছে অভাবে। শালারা নাটক শুরু করছে। লাথি মাইরা দল থেকে বের করে দেওয়া উচিত ছিল।জহিরুল ইসলাম নামের একজন লিখেছেনঃ জুয়াড়িরা তার সাথে যোগাযোগ করছে, সে করে নাই এবং তাদের অপার প্রত্যাখ্যান করছে, গ্রহ্ন করে নাই।দেশের সমস্ত ক্রিকেটারদের সুযোগ সুবিধার জন্য সে আন্দোলন করছে, তার নিজের জন্য না। সালমনান চৌধুরী নামের একজনঃ সাকিব বাংলাদেশকে যা দিয়েছে এবং দিয়ে যাচ্ছে তা কোন ক্রিকেটার পারবে বলে মনে হয় না।কাজী রনি নামের একজন লিখেছেনঃপাপন পদত্যাগ করেনা কেন?হাসনাত সোহেল নামের একজন লিখেছেনঃ বাংলাদেশকে সাকিব যা দিয়েছে তার প্রতিদান এভাবে দিতে চান আপনারা? এরপর ভবিষ্যৎ এ আরেকজন সাকিব আর আসবে কিনা জানিনা! কারন এমন সাকিব শত বছরেও জন্মায়না।

জাহাঙ্গীর লুসাই নামের আরেকজন লিখলেনঃ দেশের ক্রিকেটের জন্য সাকিব আল হাসান নিঃসন্দেহে একটা ফ্যাক্টর। দেশের ক্রিকেটের জন্য তার কন্ট্রিবিউশন ছোট করে দেখার সুযোগ নাই। কিন্তু একজন ভালো প্লেয়ারের গল্প বলতে বলতে ওই প্লেয়ারের ব্যক্তিত্বের গল্পও যখন সামনে চলে আসে, তখন তার সামনে অথবা পেছনে, পক্ষে-বিপক্ষে একটা বিশ্লেষণ দাড় করি, তারপর আমরা একটা সিদ্ধান্তে যাই, বাই পারসন মানুষটা কেমন? যদি বাই পারসন মানুষটা ভালো হয়, তাহলে তার ভুলগুলো আমরা মার্জিত ভাবে নিতে শিখেছি, নিতে চাই। সাকিব আল হাসান ভালো ক্রিকেটার বটে কিন্তু তার মধ্যে মানবিক গুনাবলি গুলো একটু কম আছে বলে আমার ধারণা। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দর্শকদের সাথে তার একাধিক বার বাজে ব্যবহার, বিসিবির রুলস অমান্য, কাউকে পাত্তা না দেয়ার মানসিকতা এবং নিজেকে সবসময় অপরিহার্য ভাবা, দাম্ভিকতার শেষ পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার গল্পগুলো যখন মাথায় আসে তখন সাকিব আল হাসানের জন্য বিন্দুমাত্র সিম্পেথি গ্রো আপ করেনা। এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট ভক্তরা চাচ্ছে সাকিব আল হাসান ক্রিকেট খেলা এবং বাংলাদেশের সম্মান বাঁচিয়ে রাখুক।

ফেসবুকের এই ঝড় কতদিন থাকে জানিনা তবে এটুকু জানি সাকিব-আল-হাসান বিশ্বের একজন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে কোনোরকম জুয়া বা কোনরকম মশকারি ঠাট্টা চায়না বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

স্বাধীন কন্ঠ/ রবিউল হোসেন।

Categories:খেলা
Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *