সময় এসেছে জেগে উঠার!

মুহাম্মদ মহরম হোসাইন।

এমনটিতো হবার কথা ছিল না, পন্যের অতিরিক্ত মূল্যের দাবীর প্রতিবাদ করতে গিয়ে নির্যাতিত ও লাঞ্ছিত হলাম। তবে এব্যপারে মনে বিন্দুমাত্র কষ্ট পাইনি। কারণ,”অন্যায়ের কাছে মাথানত না করে বেঁচে থাকা মানেই মানুষ হয়ে বেঁচে থাকা।”

ছাত্রজীবন থেকেই মনে মনে শপথ নিয়েছিলাম জীবন চলার পথে “যতই নির্যাতিত ও লাঞ্ছিত হয়, কিন্তু অন্যায় ও জুলুম দেখলে প্রতিবাদ করবোই।”এর মানে কারো থেকে বাহ্বা পেতে এবং প্রতিপক্ষ কাউকে হেয় করার জন্য নয়। ইদানিং মনের ভিতর বার বার কয়েকটি প্রশ্ন উঁকিঝুঁকি মারছে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলায় অন্যায়কারী ও লুটেরাই কি মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে থাকবে? আর অন্যদিকে দুর্বলরা বার বার মার খেয়ে যাবে? এজন্যই কি বাংলার অগণিত আবাল, বৃদ্ধা, যুবকদের এক সাগর রক্ত ও লাখ লাখ মা-বোনেদের সম্ভ্রমের বিনিময়ে স্বাধীনতার লাল সূর্য রচিত হয়েছিলো? জুলুমবাজ ও লুটেরাদের শক্তি বেশি না ইমানদারদের? এসব প্রশ্নের উত্তর খোঁজার মাঝেও মন বলে সময় এসেছে জেগে উঠার। আর শিশুকালে পড়া বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম রচিত, ‘আমি হবো’ কবিতার লাইন দুটি বেশি বেশি মনে পড়ে, “আমরা যদি না জাগি মা কেমনে সকাল হবে, তোমার ছেলে উঠলে গো মা রাত পোহাবে তবে” মনে পড়ে কবি কুসুমকুমারী দাশ এর আদশ ছেলে কবিতার দুটি চরন, মুখে হাসি, বুকে বল, তেজে ভরা মন,
‘মানুষ’ হইতে হবে, মানুষ যখন।

আসুন স্বদেশ ও স্বদেশের প্রতিটি অসহায় মানুষদের জন্য কিছু করি, যার যার অবস্হান থেকে তাদের পাশে দাঁড়াই। নইতো শহীদদের আত্মা আমাদের প্রতিনিয়ত অভিশাপ দিবে। আর আমরা হবো নিকৃষ্টদের দলে অন্তর্ভূক্ত।

লেখকঃ সংবাদকর্মী ও
নির্বাহী সদস্য, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে)।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *