যে কারণে বিনা মূল্যে করোনার টিকা পাবে বাংলাদেশ!

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাবেক উপদেষ্টা অধ্যাপক মুজাহেরুল হক বলছেন, ‘যেসব দেশের নাগরিকদের মাথাপিছু আয় চার হাজার ডলারের বেশি, তাদের টিকা কিনতে হবে। কিন্তু বাংলাদেশের নাগরিকদের মাথাপিছু আয় যেহেতু তার চেয়ে কম, ফলে বাংলাদেশের মতো দেশগুলো বিনা মূল্যেই টিকা পাবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্ট্র্যাটেজিক অ্যাডভাইজরি গ্রুপ অব এক্সপার্টের সদস্য অধ্যাপক ফেরদৌসী কাদরী এক নিবন্ধে লিখেছেন, কভিড-১৯-এর টিকার জন্য বাংলাদেশ অনেক আগ্রহ নিয়ে অনেক চেষ্টা চালাচ্ছে। এক বা একাধিক টিকা যেন আমরা পরীক্ষা করতে পারি এবং আমরা যেন টিকা পেতে পারি, সেই চেষ্টা হচ্ছে। আমি আশাবাদী, যেসব দেশ কভিড-১৯-এর টিকা প্রথম দিকে পাবে, তার মধ্যে বাংলাদেশ থাকবে।

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের বিস্তৃতি বাড়ছে, একই সঙ্গে চলছে এই রোগের টিকা আবিষ্কারের চেষ্টা। জাতিসংঘের সর্বশেষ ২০ জুলাইয়ের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে টিকা বানানোর ১৭৩টি উদ্যোগ চলছে। এর মধ্যে কয়েকটি টিকার মানবদেহে পরীক্ষা চলছে।

কার্যকর টিকা আবিষ্কারের সম্ভাবনা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আলোচনায় আসছে, কিভাবে এই টিকা মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসচিব এম এ মান্নান গতকাল জানিয়েছেন, করোনার ভ্যাকসিন বিনা মূল্যে পাবে বাংলাদেশ, সবার আগে পাওয়ার চেষ্টা চলছে।

বাংলাদেশে দুটি বেসরকারি ফার্মাসিউটিক্যাল কম্পানির টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে। তবে এখনো কোনো টিকা আবিষ্কৃত না হওয়ায় তারা কোনো রকম উৎপাদনের জন্য প্রস্তুতি নেয়নি।

সূত্র : বিবিসি বাংলা

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *