মিয়ানমারের সেনা শাসকদের উপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপ

মিয়ানমারের সামরিক শাসনের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ২০ জানুয়ারি শপথ গ্রহণের পর প্রেসিডেন্ট বাইডেন এই প্রথম নিষেধাজ্ঞার পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। বাইডেনের এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় আছে মিয়ানমারের সেনা প্রধান, কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্য।

যুক্তরাষ্ট্রে থাকা এক বিলিয়ন ডলারের সরকারি তহবিল মিয়ানমারের সেনাবাহিনী যাতে ব্যবহার করতে না পারে, সে জন্যও পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

বাইডেন বলেছেন, তাঁর প্রশাসন চলতি সপ্তাহেই নিষেধাজ্ঞার প্রথম লক্ষ্যগুলো নির্ধারণ করবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা কঠোর রপ্তানি নিয়ন্ত্রণ আরোপ করতে যাচ্ছি। যুক্তরাষ্ট্রে মিয়ানমার সরকারের সম্পদ জব্দ করতে যাচ্ছি। তবে স্বাস্থ্যসেবা, সুশীল সমাজসহ যেসব ক্ষেত্রের সঙ্গে মিয়ানমারের জনসাধারণের প্রত্যক্ষ সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার বিষয় জড়িত রয়েছে, সেগুলোর প্রতি আমরা সমর্থন জানাব।’

মিয়ানমারে সেনা শাসকদের বিরুদ্ধে আরো কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার হুশিয়ারি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বাইডেন আরো বলেছেন, সামরিক বাহিনীকে অবশ্যই দখলে নেওয়া ক্ষমতা ছেড়ে দিতে হবে এবং সে দেশের জনগণের গত ৮ নভেম্বরের নির্বাচনের রায়কে সম্মান জানাতে হবে।

আরো জানা গেছে, মিয়ানমারে শক্তিশালী রপ্তানি নিয়ন্ত্রণ আরোপের এবং মিয়ানমার সরকারের উপকারে আসার মতো মার্কিন ‘সম্পদ’ জব্দ রাখবে জো বাইডেন প্রশাসন।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *