বিনা নোটিশে চাকুরীচ্যুত করলো ইউএসটিসির স্টাফদের।

বিশ্বব্যাপী করোনা সংকটে যখন চারদিক দিশেহারা, বিপদ মোকাবিলায় যখন মানবতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে একজন অন্যজনের প্রতি তখনি এক ঘৃণ্য ন্যাক্কারজনক দৃস্টান্ত স্থাপন করলো চট্রগ্রামের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় University Of Science And Technology (USTC) বিগত ৫ এপ্রিল বিনা নোটিশে কর্মচ্যুত করা হয় Bangabandhu Memorial Hospital (BBMH) এর ১৯ জন দক্ষ নার্স, ৪ জন আয়া এবং ১১ জন স্টাফকে। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এমন অযৌক্তিক স্বেচ্ছাচারী সিদ্ধান্তের পক্ষে কোন কারন দর্শানো হয় নি। উল্লেখ্য যে তারা প্রত্যকেই দীর্ঘদিন থেকে এই প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে পূর্বের কোন অভিযোগ না থাকায় হঠাৎ কর্তৃপক্ষের এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন সিদ্ধান্তে অনেকেই হতবিহবল হয়ে পড়েন। ধরনা করা হচ্ছে নিম্ন আয়ের এই সেবকগণের বেতন না দেয়ার নির্লজ্জ উদ্দেশ্যের কারনেই কর্তৃপক্ষ এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পরদিন কর্মস্থলে এসে চাকরিচ্যুতের সিদ্ধান্তে অনেকেই কান্নায় ভেংগে পড়েন। অনেক পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যাক্তিটি দেশের এই সংকট সময়ে চাকরি হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েন। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে এর আগেও মুজিববর্ষ উদযাপনে অনীহা এবং মুজিববর্ষ উপলক্ষে টানানো ব্যানার ছিড়ে জাতির জনক শেখ মুজিবের জন্মশতবার্ষিকী অবমাননা করার মতো ঘটনা ঘটে । এই অবমাননাকর ঘটনার পর পরই বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল অনুষদের সাধারণ ছাত্রছাত্রী সম্মলিতভাবে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ মিছিল করেন। সাম্প্রতিক সময়ে স্বনামধন্য এই প্রতিষ্ঠানটির এরকম বিতর্কিত অসংখ্য কালো সিদ্ধান্ত প্রদানের মূল কুশীলব হিসেবে চিহ্নিত করা হয় প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যানের পাকিস্তানি কাশ্মিরী সহধর্মিণীকে। পরিচালনা পর্ষদের কোন দায়িত্বে না থাকলেও এই পাকিস্তানি মহিলার তৈরী করা বিশেষ এক চক্রের বিশেষ উদ্দেশ্যেই এসকল ঘটনা ঘটছে। ধারনা করা হয় মুজিববর্ষ উদযাপনে বাধা দেয়ার মুল হোতাও স্বাধীনতা বিদ্বষী এই পাকিস্তানি নারী।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *