বাবরি মসজিদের স্থানে রামমন্দির স্থাপনের রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট

আলোচিত বাবরি মসজিদ মামলার রায় দিয়েছেন ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। রায়ে বলা হয়েছে, অযোধ্যার বিতর্কিত জমি পাচ্ছেন হিন্দুরাই। এর ফলে সেখানে তৈরি হবে রাম মন্দির। আর বিকল্প জমি দেয়া হবে মুসলিমদের।প্রধান বিচারপতি ছাড়াও বেঞ্চে রয়েছেন বিচারপতি এসএ বোবদে, ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, অশোক ভূষণ এবং এস আব্দুল নাজির। ইতিমধ্যেই আদালতে পৌঁছে গিয়েছেন প্রধান বিচারপতি।শনিবার সকালে শীর্ষ আদালতের এক নম্বর ঘরে রায় ঘোষণা করা হয়। স্থানীয় সময় ১০টা ১৫ মিনিটে সেই ঘর খুলে দেওয়া হয়। তারপর বিচারপতিরা সেই ঘরে প্রবেশ করেন। এরপর রায়ের কপিতে সই করে রায় পড়তে শুরু করেন প্রধান বিচারপতি। এর আগে শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের আর্জি খারিজ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। একই সঙ্গে নির্মোহী আখড়ার আর্জিও খারিজ করেন বিচারপতিরা।বাবরি মসজিদের জায়গায় মন্দির স্থাপনের পক্ষে রায় দিয়েছে আদালত। এজন্য আগামী ৩-৪ মাসের মধ্যে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারকে বিশেষ স্কিম তৈরি করার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। যাতে বিতর্কিত বাবরি মসজিদের জমি মন্দির পক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়। অন্যদিকে বিতর্কিত বাবরি মসজিদের জমি বাদে নতুন মসজিদ তৈরির জন্য অযোধ্যার ৫ একর জমি দেওয়া হবে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে।সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আরো বলা হয়েছে, ১৮৫৫ সাল পর্যন্ত প্রমান পাওয়া যায় যে হিন্দুরা ওই স্থানের অন্দরেও প্রবেশ করেছে। ১৮৫৬ পর্যন্ত বাবরি মসজিদে নামাজ পড়ার কোনও প্রমাণ পাওয়া যায় না। পরবর্তীকালে প্রার্থনার জন্য ব্যবহার করা হত সেই মসজিদ। তবে হিন্দুরা যে মনে করে ডোমের নীচেই ছিল রামের জন্মস্থান, এর কোনো সত্যতা খুঁজে পায়নি আদালত। তাই হিন্দুদের এই দাবিকে একটা বিশ্বাস হিসাবে উল্লেখ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। নিজেদের জায়গা না পেয়ে পুরো পৃথিবী জুড়ে মুসলমান সম্প্রদায়ের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্বাধীন কন্ঠ / আন্তর্জাতিক ।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *