পর্যটন নির্ভর অর্থনীতি চাঙ্গা করতে অভ্যন্তরীণ বিমান ভাড়া কমিয়ে দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া

অভ্যন্তরীণ পর্যটন খাতকে চাঙ্গা করতে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে বিভিন্ন দেশের সরকার। পিছিয়ে নেই অস্ট্রেলিয়াও। এবার দেশের পর্যটকদের জন্য সুখবর নিয়ে এলো অস্ট্রেলিয়ার সরকার। পর্যটন খাতকে চাঙ্গা করতে বিমান ভাড়া অর্ধেকে নামিয়ে এনেছে দেশটির সরকার। অস্ট্রেলিয়ার অভ্যন্তরীণ পর্যটনকে চাঙ্গা করতে অর্ধেক মূল্যে বিক্রি হচ্ছে অভ্যন্তরীণ রুটে চলাচলকারী বিমানের টিকিট। 

যেসব পর্যটন স্থানে যেতে অর্ধেক বিমান ভাড়া লাগবে, সে স্থানগুলো হলো অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড, নর্দান টেরিটোরি, তাসমানিয়া, ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া, নিউ সাউথ ওয়েলস, ভিক্টোরিয়া, সাউথ অস্ট্রেলিয়া।

প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেন, সরকার অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নগরীগুলোর বাইরের বিভিন্ন এলাকা ভ্রমণে আট লাখ ফ্লাইটকে ভুর্তকি দিতে ১২০ কোটি অস্ট্রেলীয় ডলার ব্যয় করবে। আর এই এলাকাগুলো আন্তর্জাতিক পর্যটকদের ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল।

মহামারি করোনাভাইরাস মোকাবেলায় গত মার্চে অস্ট্রেলিয়া তাদের সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়ার পর থেকে স্বাভাবিকভাবেই বিশ্বের অন্যান্য দেশের পর্যটক অস্ট্রেলিয়া আসা বন্ধ হয়ে যায়। এখন পর্যন্ত বিদেশি পর্যটকদের জন্য ফের সীমান্ত খুলে দেওয়ার কোন ঘোষণা দেওয়া হয়নি। মহামারি শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়ার বাৎসরিক আন্তর্জাতিক পর্যটনের আয় ছিল ৪৫ বিলিয়ন অস্ট্রেলীয় ডলার।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *