নড়াইলে মৃত ব্যক্তি কবর থেকে উঠে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির চাল উত্তোলন করছে!!

নড়াইলে মৃত ব্যক্তি কবর থেকে উঠে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির চাল উত্তোলন করে আবার কবরেই শুয়ে রইলেন। ঘটনাটি ঘটেছে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নে। অভিযোগ উঠেছে ৫ জন মৃতব্যক্তি এবং কয়েকজন প্রবাসীর নামে নিয়মিত চাল তুলা হয়েছে। আর এ সব মৃত ব্যক্তি তাদের চাল উত্তোলন করেছেন।এলাকাবাসী জানান,দিঘলিয়া ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি চালের ডিলার আকরাম শেখ। তিনি মৃত ও প্রবাসীর নামে কার্ড করে তাদের সমুদয় চাল উত্তোলন করেছেন। জানা গেছে, ইউনিয়নের কুমড়ি গ্রামের হাফিজুর শেখের মেয়ে আছিয়া বেগম (কার্ড নম্বর ১০৩৭), মালেক মোল্যার ছেলে ফসিয়ার মোল্যা (কার্ড নম্বর ১২৭৫) মোকছেদ শেখের ছেলে আব্দুস সাত্তার (১৩২৭), মালেক খানের ছেলে হিমায়েত খান (কার্ড নম্বর ১৩৬৮), আব্দুস সালাম সিকদারের ছেলে রফিকুল ইসলাম (কার্ড নম্বর ১১৭২) অনেক আগেই মারা গেছেন।

সব মৃত ব্যক্তিরা ডিলার আকরাম শেখের প্রতিবেশী। ডিলার তাদের নামে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় চাল উত্তোলন করছেন দীর্ঘদিন ধরে। এছাড়াও কর্মসূচির শুরুতে লুটিয়া গ্রামের আবু সাইদের ছেলে নাজমুল হকের (কার্ড নম্বর ১০১৭) নামে চাল উত্তোলন করা হচ্ছে। কিন্তু নাজমুলের সাথে কথা বললে তিনি জানান, ‘আমার নামে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির কার্ড ইস্যু হয়েছে তা আমার জানা নেই। আমি কোনো চাল উত্তোলন করেননি।’ বিলায়েত হোসেনের ছেলে মান্নু (কার্ড নম্বর ১৩৮৬) বিদেশে অবস্থান করছেন। তার নামে কার্ড রয়েছে।
যা উত্তোলন করা হচ্ছে। অভিযুক্ত ডিলার আকরাম শেখ মৃত এবং প্রবাসীর নামে কার্ড করে চাল উত্তোলন করায় ভুল হয়েছে স্বীকার করেন। দিঘলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নীনা ইয়াছমিন বলেন, এরকম কোনো ঘটনা আমার জানা নেই এবং এ বিষয়ে বলেন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলব। উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মুকুল কুমার মৈত্র বলেন, এমন কিছু হলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেবো।

তথ্য প্রদানকারীঃ উজ্জ্বল রয়

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *