দূর্ভোগে স্থানীয়রা মাদার্শায় কালভার্ট সংস্কার করার নামে গুরুত্বপূর্ন সড়ক বন্ধের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক তথ্য ও ছবি সংগ্রহেঃ জাহেদ মনজু
সহযোগিতাঃমোঃ মহিন ও আলাউদ্দীনঃ
হাটহাজারী উপজেলার ১০নং উত্তর মাদার্শা ইউনিয়নে কালভার্ট সংস্কারের নামে দীর্ঘদিন ধরে সড়ক বন্ধ করে রাখার অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। জানা যায়, উপজেলার উত্তর মাদার্শা ইউনিয়নের জোড়পুকুর পাড় (ব্যারিষ্টার সানাউল্লাহ সড়ক) মাদারীপুল সড়কের মদিনা একাডেমির পার্শ্ববতী কালভার্টের কাজ শুরু করে ওয়েল এন্টারপ্রাইজ নামের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কোন প্রকার বিকল্প সড়ক না করে সম্পুর্ন সড়ক কেটে যান চলাচল এমনকি সাধারন মানুষের চলাচলও পর্যন্ত বন্ধ করে রাখে। ফলে প্রতিদিন শত শত মানুষ অতীব প্রয়োজনেও ওই সড়ক দিয়ে চলাচল করতে পারছেনা।
এদিকে স্থানীয় ও ইউপি সদস্যের প্রচেষ্টায় কয়েকটা বাশঁ দিয়ে ছোটখাটো সাকোঁ তৈরি করে কোনভাবে সাধারন মানুষের চলাচলের ব্যাবস্থা করা হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কালভার্টের কাজ শুরু করার সময় অন্তত মটর সাইকেল সিএনজি চলাচলের জন্য লোহার পাঠাতন বসিয়ে হলেও হালকা যানচলাচলের ব্যবস্থা করার অনুরোধ করেন স্থানীয়রা কিন্তু তারা কারো কথা কর্নপাত না করে পুরো রাস্তা কেটে কালভার্ট তৈরির কাজে হাত দেয়।স্থানীয়রা জানান, এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন মাসুদকে অতিবাহিত করলে তিনি বিকল্প সড়ক হিসেবে হালদার ভেড়ীবাধ দিয়ে যান চলাচল ও সাধারন মানুষকে চলাচলের পরামর্শ দেয়। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের একঘুয়েমির কারনে আজ সাধারন মানুষ চরম দূর্ভোগে আছে।
স্থানীয় কাজী আকতার হোসেন বাদল বলেন, “ব্যাস্ততম এই সড়ক বন্ধ করে কালভার্ট নির্মাণ করার ফলে আমাদের প্রচন্ড সমস্যা হচ্ছে। সড়কের যান চলাচল সম্পুর্ন বন্ধ থাকার কারনে লগডাউনে থাকা সাধারন মানুষেরা সরকারী বেসরকারী সাহায্য থেকেও বঞ্চিত হচ্ছে।স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন মাসুদ জানান,”করোনা ভাইরাসের কারনে লকডাউনে আছে বলেই কালভার্টের কাজ একটু ধীর গতীতে চলছে। কালভার্টের পাশ ছোট হবার কারনে বিকল্প সড়কের জায়গা না থাকায় ভেড়ীবাধের উপর দিয়ে যানচলাচল করার পরামর্শ দিয়েছি। বর্তমান মহা দূর্যোগে সাধারন মানুষের কষ্ট হচ্ছে তা জানি। খুব শীঘ্রই আশা করি কালভার্টের কাজ শেষ করা হবে।”হাটহাজারী উপজেলা চেয়ারম্যান রাশেদুল আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন” এই উত্তর মাদার্শা আমার জম্মস্থান। আমি নির্বাচিত হবার পরপরই এই সড়ক সংস্কার করেছি স্বল্প পরিসরে। আমার এলাকার জনসাধারনের জন্য আমি প্রায় সড়কের কাজ করেছি এবং বাকী কিছু সড়কের কাজ শুরু করবো। বর্তমান বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারনে কালভার্ট ও সড়ক সংস্কারের কাজ কম চলছে। ইনশাআল্লাহ মহান আল্লাহ চাইলে খুব শীঘ্রই এই মহাদূর্যোগ চলে যাবে। আমি নিজেই এই কাজের তদারকি করছি। আশা করি কাজ দ্রুত শুরু হবে”। ০৩-০৪-২০২০ ইং/ হাটহাজারী /শুক্রবার ।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *