ত্রিমাত্রা লাকেম্বা ঈদ মেলা ২০২১”-র জমজমাট শুরু

নিউ সাউথ ওয়েলস কোভিড সেইফটি রুলস্ অনুসরন করে ত্রিমাত্রা অস্ট্রেলিয়া ইন্ক্ আয়জিত  দুই দিন ব্যাপী(পরপর দুই শনিবার)  ঈদ উল ফিতরের ” ত্রিমাত্রা লাকেম্বা ঈদ মেলা”-র জমজমাট শুরু হয়েছে গত পহেলা মে (শনিবার) ।  সিডনি প্রবাসী বাঙালিদের প্রাণকেন্দ্র লাকেম্বার ‘ল্যাকেম্বা ইউনাইটিং চার্চ এ অনুষ্ঠিত  হয়ে গেল  দুই  দিনব্যাপী(পর পর দুই শনিবার ) ‘ ত্রিমাত্রা    লাকেম্বা ঈদ মেলা  ২০২১’- এর প্রথম দিন ।  আগামী ৮ই মে,শনিবার  আবারো   লাকেম্বার ‘ল্যাকেম্বা ইউনাইটিং চার্চ এ, দ্বিতীয়  এবং এবারের ঈদ উল ফিতরের শেষ মেলাটি অনুষ্ঠিত হবে ।  অন্যবারের মতো এবারও সকাল ১১ টা থেকে রাত ১০ টা পযন্ত সিডনির  বিখ্যাত ফ্যাশান হউসগুলোর অংশগ্রহনে   “ত্রিমাত্রা লাকেম্বা ঈদ মেলা” অনুষ্ঠিত  হচ্ছে  । 

ঈদ মেলাকে ভিন্নরূপ দেয়াই ত্রিমাত্রার নতুনত্ব । মেলার প্রথম দিন ঈদ মেলায় যেমন ছিল প্রচুর লোকের সমাগম তেমনি ছিল নতুন বুটিক্স এবং দেশীও কাপড়ের সমাহার।প্রবাসে বসে সিডনির নারী উদ্যোক্তাদের তাদের প্রদর্শিত পণ্য প্রবাসী ক্রেতাদের পৌঁছে দিতে ,প্রবাসে বসে দেশের স্বাদ গ্রহন করা এবং নতুন প্রজন্মের কাছে  দেশীয় ঐতিহ্যকে তুলে ধরতেই ঈদ মেলার আয়োজন। সকাল থেকে প্রচুর  ক্রেতার সমাগম ঘটে । দেশি ঈদ শপিং বলতে  আমরা যেমন  নিউমারকেট-গাওসিয়া, মিরপুর,বসুন্ধারা কিংবা  ধানমন্ডির জমজমাট শপিংমল ও লোকারণ্য বুঝি, তেমনি জমজমাট স্বাদ ত্রিমাত্রার এই ঈদ মেলায় দেখা গেছে। প্রত্যেকটি ফ্যাশন  হউস তাদের পোশাকে নতুনত্ব বজায় রেখেছে। সিডনির  বিখ্যাত ফ্যাশান হউসগুলো ছিল এই মেলায়। তাদের রকমারি পোশাক আমাদের মেলার সৌন্দর্য অনেকখানি বাড়িয়ে দিয়েছে। সবগুলো স্টল সজ্জিত ছিল রকমারি দেশিও পোশাকে। দেশী শাড়ি ,সালওয়ার-কামিজ , গহনা ,ছেলেদের পাঞ্জাবি, ছোটোদের পোশাক, এবং রকমারি খেলনার পসরা সাজিয়ে নিয়ে এসেছিলেন বিক্রেতারা। এছাড়া জুয়েলারি এবং মেহেদী , ঈদের হেয়ার কেয়ার ,ও রূপসজ্জার বিভিন্ন প্রোডাক্টের ষ্টল ছিল মেলার অন্যতম প্রধান আকর্ষণ । ক্রেতাদের কেনাকাটা দেখে মনে হয়েছে আমরা যেন বাংলাদেশেরই কোন বিপনিকেন্দ্রে আছি। আর ছিলো দেশীও খাবার, যা চিরচেনা বাংলাদেশকে মনে করিয়ে দিয়েছে। 

ত্রিমাত্রা সবসময়ই বাতিক্রম।আমরা মূলত বাংলা এবং দক্ষিণ এশিয়ার কমিউনিটিকে বিভিন্ন ভাবে সাহায্য করার জন্য এই মেলা আয়োজন করে থাকি। সিডনি তে যারা পোশাক এর ব্যবসা করে তারা মুলত সবাই মহিলা।মহিলাদের কাজের আরও সুযোগ  তৈরি করাই মেলার মূল উদ্দেশ্য।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *