তেল নিয়ে তেলেসমাতি ও বিশ্ব রাজনীতির নতুন খেলা! ( সরওয়ার আলম সাজ্জাদ)


বিশ্বব্যাপী নতুন করে রাজনৈতিক খেলা চলছে তেল নিয়ে। ইতিমধ্যে তেলের দাম ব্যাপকভাবে কমে গিয়ে বিশ্ব অর্থনীতিতে একটি নতুন অস্থিরতার সৃষ্টি হয়েছে। বিশ্বের শক্তিশালী রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে চীন ও রাশিয়া এই তেলেসমাতির প্রধান কারিগর হলেও সৌদি আরব এখানে টেস্ট ক্রিকেটের লাল বল! আধিপত্য বিস্তার ও নিজেদের  মুদ্রার অবস্থান শক্তিশালী করতে রাশিয়া ও চীন ব্লক এই গেইম প্ল্যান করে নেমেছে। বিশ্ব অর্থনীতিতে আমেরিকার প্রভাবের প্রধান অস্ত্র ডলার। এই ডলারের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মুদ্রা হচ্ছে তেল! মূলত তেলের উপর বিশ্ব অর্থনীতি অনেকাংশে নির্ভরশীল। আমেরিকা বিশ্বের অন্যতম তেল উৎপাদনকারী দেশ। আমেরিকার অর্থনীতিকে চাপে ফেলতে রাশিয়া সৌদিকে কৌশলগতভাবে ব্যবহার করে তেলের মূল্য তলানিতে পৌঁছে দিয়েছে। যদিও সৌদি আরব আমেরিকার অন্যতম বিশ্বস্ত সহযোগী কিন্তু এই মূহুর্তে রাশিয়ার ফাঁদে পড়ে সৌদি আরব অতিরিক্ত পরিমানে তেল উৎপাদন শুরু করেছে ফলে তেলের পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়ে গেছে। রাশিয়াও প্রচুর পরিমান তেল উৎপাদন করলেও তার এই তেলের বড় ক্রেতা চীন। চীন প্রচুর তেল কিনে এই মূহুর্তে তেলের মূল্য এমনভাবে কমেছে যে বহুজাতিক তেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সমূহ মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছে যার বেশিরভাগই আমেরিকা ও ইউরোপ ভিত্তিক। কোম্পানিগুলো তেলের এমন মূল্যহ্রাসে কোনঠাসা হয়ে পড়েছে। এখানেই মূলত রাশিয়ার খেলা চলছে। যদি এমনভাবের কমতে থাকে বা এই অবস্থায় থাকে তাহলে আমেরিকা ও ইউরোপ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ছোট অর্থনীতির দেশগুলোর অবস্থা তো বলাই বাহুল্য। করোনা ভাইরাস সেই আগুনে ঘি ঢেলে দিলো। পুরো বিশ্ব একটি মানবিক বিপর্যয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। উন্নত ও শক্তিশালী অর্থনীতির  দেশগুলো সামাল দিতে পারবে হয়ত কিন্তু বাকি দেশগুলো বিপর্যয়ের চরম পর্যায়ে পড়বে। বিশ্ব রাজনীতিতে নতুন করে অস্থিরতার সৃষ্টি হবে অচিরেই।    চীন করোনা ভাইরাসের কারণে বিপর্যয়ের মধ্যে থাকলেও এখনো পর্যন্ত রাশিয়া কিংবা ভারত এদিক থেকে এখনো বেশ ভালো অবস্থানে আছে। ইউরোপ জুড়েও করোনার প্রভাব পড়ছে মারাত্মক ভাবে এই সুযোগে রাশিয়া তার পুরোনো প্রভাব ফিরে পেতে তেল নিয়ে খেলছে ডলারকে বিপদে ফেলার খেলা। সব মিলিয়ে বিশ্বব্যাপী একটি সুক্ষ খেলা চলছে। অন্যদিকে দূর্বল অর্থনীতির দেশগুলোর অবস্থা করুণ হয়ে পড়ছে দিন দিন। একটি ভয়াবহ মন্দার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বিশ্ব অর্থনীতি। এখন দেখার বিষয় আমেরিকা ও ইউরোপের দেশগুলো কি করে এই বিষয় থেকে উত্তরনের জন্য। তবে আপাতত অবস্থাদৃষ্টে পরিস্থিতি ভয়ংকর রুপের দিকেই এগুচ্ছে। 

Categories:মতামত
Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *