ঢাকা চট্টগ্রামসহ সারা দেশে মোট ছয় আসনের সব কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা চট্টগ্রামসহ  দেশের মোট  ৩০০ আসনের মধ্যে ছয়টি আসনের সব কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। আসনগুলো হলো ঢাকা-১৩, ঢাকা-৬, চট্টগ্রাম-৯, রংপুর-৩, খুলনা-২ ও সাতক্ষীরা-২।

images (1)

নির্বাচন কমিশন (ইসি) সম্মেলন কক্ষে দৈবচয়ন ভিত্তিতে এ ছয়টি আসন চূড়ান্ত করা হয়। সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে নির্বাচন কমিশনের সম্মেলন কক্ষে কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ের মাধ্যমে প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়। ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, অতিরিক্ত সচিব মোখলেছুর রহমানসহ অন্যান্য কর্মকর্তা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ছয়টি আসন চূড়ান্ত করা হয়। প্রথম ক্যাটাগরিতে ছিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, দ্বিতীয় ক্যাটাগরিতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন, তৃতীয় ক্যাটাগরিতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ও ঢাকা-চট্টগ্রাম ব্যতীত অন্যান্য সিটি করপোরেশন ছিল চতুর্থ ক্যাটাগরিতে। এর বাইরে পঞ্চম ক্যাটাগরিতে ছিল অন্যান্য সদর উপজেলা ও পৌরসভা। ছয়টি আসনের মধ্যে দুটি বেছে নেয়া হয়েছে ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকা থেকে, একটি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকা থেকে ও দুটি আসন বাকি ১০ সিটি করপোরেশন এলাকা থেকে। এছাড়া ২১টি জেলা সদর থেকে দৈবচয়ন ভিত্তিতে বেছে নেয়া হয় অবশিষ্ট আসনটি।

ইসি সূত্র জানায়, এ ছয়টি আসন চূড়ান্ত করার আগে সারা দেশের ২৯ জেলার সিটি করপোরেশন ও জেলা সদরের ৪৮টি আসন প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হয়। ৪৮টি আসন থেকে দৈবচয়নের মাধ্যমে বেছে নেয়া হয় ছয়টি আসন। আসনগুলোয় সব কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার করে ভোট নেয়া হবে।

ইসি সচিব বলেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে ঢাকা-৬, উত্তর সিটি করপোরেশন থেকে ঢাকা-১৩ আসন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন থেকে চট্টগ্রাম-৯ আসন, ঢাকা-চট্টগ্রাম ব্যতীত অন্যান্য সিটি করপোরেশন থেকে রংপুর-৩ ও খুলনা-২ আসন দৈবচয়নের ভিত্তিতে ইভিএম ব্যবহারের জন্য নির্ধারিত হয়েছে। এর বাইরে অন্যান্য সদর উপজেলা ও পৌরসভা উপজেলা থেকে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা-২ আসনে ইভিএম পদ্ধতিতে সব কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এখন পর্যন্ত কমিশনের কাছে কয়টি ইভিএম রয়েছে? ইভিএম ব্যবহারের প্রস্তুতি কতটুকু সম্পন্ন রয়েছে? আর ইভিএম পরিচালনা করবেন কারা? এসব প্রশ্নের উত্তরে ইসি সচিব বলেন, ইভিএম ছয়টি আসনে দেয়ার মতো সব প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। ৩০ নভেম্বরের মধ্যে চাহিদা মোতাবেক ইভিএম আমরা পেয়ে যাব। ইভিএমে সব ধরনের ডাটা ইনপুট দেয়া হবে। সেনাবাহিনীর সিগনাল কোর ও আমাদের নির্বাচন কর্মকর্তারা মিলে কাজটি করবেন। সেই সঙ্গে যেখানে ইভিএম ব্যবহার করা হবে, সেখানকার ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। এরই মধ্যে আমাদের জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মকর্তাদের ইভিএম প্রশিক্ষণ দিয়েছি। সূত্র: বনিক বার্তা

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *