ট্রাম্প কি আইনি ঝামেলায় পড়তে যাচ্ছেন?

কংগ্রেস ভবনে নজিরবিহীন হামলার ঘটনায় প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হলেও সিনেটে আবারও রেহাই পেলেন যুক্তরাষ্ট্রের সদ্যোবিদায়ি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দেশটির ইতিহাসে তিনিই প্রথম প্রেসিডেন্ট, যিনি এক মেয়াদে পর পর দুইবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে অভিশংসিত হয়েছেন। আর ক্ষমতা ছাড়ার পর শুধু তাঁকে নিয়েই উচ্চকক্ষে অভিশংসনের বিচারের আয়োজন হলো।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিশংসন দণ্ড থেকে অব্যাহতি পেলেও কৃতকর্মের দায় তাঁকে তাড়া করছে। আবারও নতুন নতুন আইনি ঝামেলায় পড়তে যাচ্ছেন তিনি। চার বছরের বেপরোয়া কর্ম আর ক্ষমতার শেষ দিকে যুক্তরাষ্ট্রকে অস্থির করে তোলার খেসারত তাঁকে দিতেই হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

দ্বিতীয় দফা অভিশংসন আদালত থেকে অব্যাহতি পাওয়া ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে জর্জিয়া রাজ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। জর্জিয়া রাজ্যের নির্বাচন কর্মকর্তাকে ট্রাম্প ফোন করে ভোটের ফলাফল পাল্টে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন। সেই তদন্তেরও এখন গতি বেড়েছে। নিউইয়র্কে আগে থেকেই চলমান অপরাধ তদন্ত নড়াচড়া শুরু করেছে। রাজ্য মর্যাদায় থাকা রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি কর্তৃপক্ষও ট্রাম্পের নামে অপরাধ সংগঠনের অভিযোগ এনে বিচারের সম্মুখীন করার উদ্যোগ নিয়েছে।

ক্ষমতা থেকে সরে যাওয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে বিচার থেকে দায় মুক্তির সুযোগ এখন ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেই। তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক নারীর করা মামলাও ঝুলে আছে। ট্রাম্পের ব্যবসায়িক লেনদেন ও কর ফাঁকির বিষয়েও তদন্ত চলছে।

জর্জিয়ার ফুলটন কাউন্টির অ্যাটর্নি জেনারেল ফেনি উইলস বলেছেন, তদন্তের মাধ্যমে অপরাধের সঙ্গে জড়িত যেকোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করা হবে। নির্বাচনের ফল পাল্টে দেওয়ার জন্য কোনো নির্দেশ বা চেষ্টার সঙ্গে জড়িত কোনো লোকের সামাজিক বা অন্য কোনো অবস্থান বিবেচনা না করেই মামলা পরিচালিত হবে। আগামী মার্চের মধ্যেই জর্জিয়ার তদন্তের ফলাফল পাওয়া যাবে বলে মনে করে হচ্ছে।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *