চরমপন্থী পোস্টের অভিযোগে নিউ সাউথ ওয়েলস -এ এক ব্যাক্তি আটক

এক ব্যক্তিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ধারাবাহিকভাবে চরমপন্থী পোস্টের জন্য অভিযুক্ত করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করেছে যে, তার এই সকল পোস্ট সহিংসতাকে উস্কে দিতে পারে।

পুলিশের অভিযোগ,৩৭ বছর বয়সী এই ব্যাক্তি জাতীয়তাবাদী, সহিংস, বর্ণবাদী এবং চরমপন্থী বার্তা সম্বলিত একটি সিরিজ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন।

নিউ সাউথ ওয়েলস কাউন্টার টেরোরিজম অফিসার জানান, এই ব্যাক্তি একজন নিয়মিত স্যোশাল মিডিয়া ব্যবহারকারী ছিল যেখানে সে অনলাইনে বিভিন্ন গোষ্ঠীর মানুষের বিরুদ্ধে হিংসাত্মক হুমকি দিয়েছিল।অফিসাররা আরো জানান, এই পোস্টগুলিতে, তিনি জাতি, রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি এবং পেশার ভিত্তিতে বিভিন্ন জাতি গোষ্ঠীর মানুষকে টার্গেট করেন।
এটাও অভিযোগ করা হয়েছে যে, তিনি বেশ কয়েকজন অস্ট্রেলিয়ান রাজনীতিকের বিরুদ্ধে সহিংসতার উসকানি দিয়েছেন।

নিউ সাউথ ওয়েলস জয়েন্ট কাউন্টার টেরোরিজম টিম আনুষ্ঠানিকভাবে লোকটির অনলাইন কার্যকলাপের তদন্ত শুরু করে যখন তার সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টগুলিকে ফৌজদারি অপরাধ হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

গতকাল বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ওই ব্যক্তিকে তার বাড়িতে আটক করে ট্যামওয়ার্থ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।
তার বিরুদ্ধে জনগণের বিরুদ্ধে সহিংসতার আহ্বান জানানো এবং সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করা সংক্রান্ত অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে।
উভয় অপরাধের সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে।
৩৭ বছর বয়সী লোকটিকে আজ ট্যামওয়ার্থ স্থানীয় আদালতে হাজির করা হয়েছিল এবং আদালত তার জামিন আবেদন প্রত্যাখ্যান করে।

আগামী বছর তাকে আবারও আদালতে হাজির করা হবে।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *