চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নরক যন্ত্রণা

করোনা মহামারিতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল যেন হয়ে উঠেছে নরকের প্রতিচ্ছবি। অক্সিজেন সমস্যা এতোটাই প্রকট যে তা দেখে চিকিৎসকরা রীতিমতো ভয় পাচ্ছেন। যে কোন মুহুর্তে অনভিপ্রেত কিছু ঘটে যেতে পারে। একজন চিকিৎসক বলছেন, ‘পুকুর থেকে মাছ তোলার পর মাছ যেরকম করে সেরকম অবস্থা হচ্ছে রোগীদের। ধরা যাক ২৫ জন রোগীর জন্য নির্ধারিত একটা জায়গা। এর মধ্যে ১৮/২০ টা বেডে অক্সিজেনের পোর্ট রয়েছে। একটা পোর্ট একজন মাত্র রোগীর অক্সিজেন যোগান দিতে পারে।সেখানে একশ জনেরও বেশি রোগী রয়েছে। বেশিরভাগ রোগীরই অক্সিজেন দরকার। তাও মিনিটে ১৫ লিটার করে। এর মধ্যে যারা ১৮টি পোর্টের কাছাকাছি বেডে ফ্লোরিং করছেন তারা একটা পোর্ট থেকে চার পাঁচজন করে অক্সিজেন নিচ্ছেন। বাকি রোগীগুলো ছটফফট করছে। যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। ফ্লোরেও হাঁটার মতো জায়গা নেই। রোগীরা রীতিমতো গড়াগড়ি খাচ্ছে। এক বেড থেকে অন্য বেডে কোন দুরত্ব নেই।’
ওদিকে আক্রান্ত ও মৃত্যুর হিসাবে এতোদিন এগিয়ে ছিল ঢাকা। কিন্তু এই প্রথম ঢাকাকে পেছনে ফেলে এগিয়ে গেল চট্টগ্রাম। শুধু ঢাকা নয়, মৃত্যুর হিসাবে চট্টগ্রাম বিভাগ মঙ্গলবার ছিল শীর্ষে। মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের সর্বশেষ স্বাস্থ্য বুলেটিনে দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হওয়া ৩৭ জন করোনা রোগীর ১৫ জনই চট্টগ্রাম বিভাগের। 

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *