চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের নির্বাচনে তাহের-আজাদ প্যানেলের জয়জয়কার।

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে প্রফেসর ডা. এম এ তাহের খান-মোহাম্মদ রেজাউল করিম আজাদ পরিষদ প্রায় পূর্ণ প্যানেলে জয় লাভ করেছেন।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্যানেল থেকে শুধুমাত্র একজন সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

৩০ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ শেষে রাতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেন।

প্রেসিডেন্ট পদে ডা. এম এ তাহের খান ২৪১৩ ভোট পেয়ে এবং জেনারেল সেক্রেটারি পদে রেজাউল করিম আজাদ ২৪৯১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে প্রেসিডেন্ট পদে ডা. আঞ্জুমান আরা ইসলাম ১৫১৯ ভোট এবং জেনারেল সেক্রেটারি পদে ডা. মোহাম্মদ আরিফুল আমীন পেয়েছেন ১৩৬৪ ভোট।

বিজয়ী প্যানেল থেকে ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে আবদুল মান্নান রানা (২৮৫৪ ভোট), ইঞ্জিনিয়ার লায়ন মোহাম্মদ জাবেদ আবছার চৌধুরী (২৫৭৮ ভোট), ডা. মোহাম্মদ পারভেজ ইকবাল শরীফ (২৫১৮ ভোট), জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি ডা. কামরুন নাহার দস্তগীর (২৬৬২ ভোট), ট্রেজারার পদে অধ্যক্ষ লায়ন মোহাম্মদ সানাউল্লাহ (২৫৮৩ ভোট), জয়েন্ট ট্রেজারার পদে লায়ন এস এম কুতুব উদ্দীন (২৫৭৩ ভোট), অর্গানাইজিং সেক্রেটারি পদে মোহাম্মদ সাগির (২৮৩৯ ভোট), স্পোর্টস অ্যান্ড কালচারাল সেক্রেটারি পদে মোহাম্মদ আহছান উল্লাহ (২০৫১ ভোট), কার্যকরী পরিষদের ১০ জন মেম্বার পদে ডা. আবু তৈয়ব (২৫৫১ ভোট), ডা. কামরুন নেসা রুনা (২৫৫০ ভোট), মোহাম্মদ আলমগীর পারভেজ (২২১৫ ভোট), ডা. নাসির উদ্দিন মাহমুদ (২১৩৪ ভোট), খায়েশ আহমদ ভুঁইয়া (১৯৭৬ ভোট), ডা. ফজল করিম বাবুল (১৯১৮ ভোট), ডা. মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন শরীফ (১৮৮৯ ভোট), মোহাম্মদ হারুন ইউসুফ (১৮১৩ ভোট), এ এস এম জাফর (১৭৬১ ভোট) এবং ছৈয়দ ছগীর আহমদ (১৬৭৭ ভোট) পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এই প্যানেলের এম জাকির হোসেন তালুকদার ১৬৪৬ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।

অপরদিকে ডা. আঞ্জুমান আরা-ডা. আরিফুল আমীন-মোহাম্মদ আনোয়ারুল ইসলাম প্যানেল থেকে কেবলমাত্র ছৈয়দ ছগীর আহমদ কার্যকরী পরিষদের দশম সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *