চট্টগ্রাম ভারতীয় ভিসা কেন্দ্রে ডলারের দাম ৯৪ টাকা আর বাইরে ৮৬ টাকা!

স্বাধীন কন্ঠ- মোঃ রবিউল হোসেন/চট্টগ্রাম: বাংলাদেশী জনগণ ভারতে বিভিন্ন কাজে সবসময় ভ্রমণ করে করে এজন্য তাদের ভিসা নিতে হয়।বর্তমানে বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায় ভিসা কেন্দ্র রয়েছে যেখান থেকে ভিসা নিয়ে জনসাধারণ ভারত ভ্রমণ করতে পারেন। কিন্তু ভিসা নিতে সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সাথে দরকার হয় ডলার এন্ডোর্সমেন্ট। ভিসা প্রত্যাশীরা চট্টগ্রামের বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে ডলার এন্ডোর্সমেন্ট করার পর এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট দেওয়ার পরেও ভিসার আবেদন গ্রহণ করা হয় না। একজন জনসাধারণকে ৮৭০ টাকায় ভারতীয় ফি জমা দিয়ে ফরম ফিলাপ করে ভারতীয় ভিসা কেন্দ্রে আবেদন জমা করতে হয় তখন তাদের থেকে ডলার এন্ডোর্সমেন্ট এর কথা বলে হাতিয়ে নেয় লাখ লাখ টাকা। এতে জনসাধারণের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। ভোক্তভোগীরা বাধ্যতামূলকভাবে ডলার এন্ডোর্সমেন্ট চট্টগ্রামের বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে নিলেও তা তারা গ্রহণ করে না। তাদের কথামতো স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া থেকে বাংলাদেশী টাকায় ১৪,১৫০ হাজার করে মূল্যমানের ট্রাভেল কার্ড নিতে হয়।যার মূল্য ৯৫ টাকা মূল্য ডলার দামে। অথচ বাজারে যার বাজার মূল্য বাহিরে বা ব্যাণিজিক ব্যাংকে ৮৫-৮৬ টাকার মত। এতে ভুক্তভোগীদের দারুণভাবে ঝামেলায় পড়তে হয়।আবার একটি আবেদনের সময় থাকে মাত্র চারদিন একটি আবেদনপত্র যখন বাতিল বলে গণ্য হয় তখনই আবার ১,০০০ টাকা খরচ করে আবার নতুন করে আবেদন ফরম করতে হয়। ভারতীয় ভিসা নিতে আসা ট্যুরস এন্ড ট্রাভেল ব্যবসায়ী জনাব ওমর ফারুক বলেন-আমি ভারতে যাওয়ার জন্য ভিসা করে রাখছি কিন্তু ডলার এন্ডোর্সমেন্ট এর কথা বলে আমার থেকে ১৪,১৫০ টাকা ট্রাভেলস কার্ড হিসেবে নিয়ে নেয় এটা ট্রাভেল কার্ডে থেকে যায়। কিন্তু আমিতো সাত মাস পরেও যেতে ও পারি ভারতে। আবার দেখা যায় চট্টগ্রামের ব্যাংকগুলোতে যে পরিমাণ ডলারের রেট আছে তার চেয়ে ১২-১৩ টাকা বেশি ভারতীয় এম্বাসিতে নেয় যা খুব কষ্টদায়ক। আলী আজগর নামের একজন বলেন-সরকারের নিশ্চয়ই কোন নজর নেই। নজর থাকলে আমাদের থেকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে টাকা নিতে পারত না। এখানে সরকারকে নজর দিতে হবে।ভারতে যেতে জনসাধারণকে যাতে হয়রানি হতে না হয় সে জন্য কর্তৃপক্ষের নজর দিলে আমরা কষ্ট থেকে মুক্তি পাবো। মেডিকেল ভিসায় নিতে আসা জনাব জামশেদ আজিম বলেন- ভিসা কেন্দ্র ডলার এন্ডোর্সমেন্ট এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট দুটোই চাই অথচ তাদের নোটিশ বোর্ডে দেওয়া আছে যেকোনো একটি হলেই হবে।ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র অনেক রকম সমস্যা রয়েছে এবং এই সমস্যাগুলো সমাধানে কর্তৃপক্ষের নজরদারী ভুক্তভোগীরা কামনা করেন। আগামীতে যাতে ডলার এন্ডোর্সমেন্ট নামে কোন হয়রানি করা না হয় এজন্য তারা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হস্তক্ষেপ কামনা করেন যাতে সহসাই ভারতীয় এম্বাসি সাথে কথা বলে সমস্যার গুলো সমাধান করে দ্রুত ব্যবস্থা করা হয়।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *