কুমিল্লায় আ.লীগ নেতাকে গলা কেটে হত্যা

জেলার তিতাস উপজেলায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাবীর হোসেন নবীকে (৫৫) গলা কেটে এবং এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল রোববার রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার বাতাকান্দি-মোহনপুর সড়কের কৈয়ারপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। নিহত নবীর হোসেন তিতাসের কৈয়ারপাড় গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ২ নম্বর জগতপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।নিহতের বড় ছেলে রাসেল জানান, গতকাল ইফতারির পর স্থানীয় ভূঁইয়ার বাজারে নিজের দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে দুর্বৃত্তরা নবীর হোসেনকে হত্যা করে।

নাবীর হোসেন কী কারণে খুন হয়ে থাকতে পারেন, এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাসেল বলেন, ‘প্রায় তিন মাস আগে আমার চাচাতো ভাই আউয়াল ডাকাতকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়। এরপর থেকেই তার পরিবারের লোকজন আমার বাবাকে সন্দেহ করে আসছে যে, আমার বাবা তাকে ধরিয়ে দিয়েছে। ডাকাত আউয়াল শুক্রবার বিকেলে জামিনে এসে বাবাকে মেরে ফেলবে বলে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে আসছিল।’

আউয়াল ও তার সহযোগীরাই নবীর হোসেনকে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেন রাসেল।

একই গ্রামের সমাজসেবক মো. মহসিন বলেন, ‘আমি মসজিদে ইতিকাফে ছিলাম। আমাকেও আউয়াল ডাকাত ডাকাডাকি করেছে মসজিদ থেকে বের হয়ে আসার জন্য। আমাকে ও নবীরকে মেরে কৈয়ারপাড় স্বাধীন করবে বলে হুমকি দিয়েছে। এখনো তার দুই ভাই কাশেম ও আবু তাহের সৌদি আরব থেকে মোবাইল ফোনে হুমকি দিচ্ছে, রাসেলকে মামলার বিষয়ে যে সহগোগিতা করবে, তাদের মেরে ফেলবে।’

তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আহসানুল ইসলাম বলেন, ‘নবীর হোসেনকে হত্যার ঘটনায় আসামিদের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা হয়েছে। আসামিদের দ্রুত গেপ্তার করতে মাঠে একাধিক টিম কাজ করছে

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *