কিশোরগঞ্জের হাওরাঞ্চলে ধান কাঁটার শ্রমিক প্রেরণ করে দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করলো সিএমপি

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের এই দূর্দিনে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কর্তৃক গৃহীত অসংখ্য মানবিক কাজের মধ্যে আরেকটি মানবিক কাজ যুক্ত করেছেন সিএমপি’র পুলিশ কমিশনার ।

কিশোরগঞ্জ জেলার প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক লকডাউন এর কারণে চট্টগ্রামের বিভিন্ন অঞ্চলে আটকা পড়ে আছেন। দেশে এখন বোরো ধান কাটার মৌসুম চলছে, এই সময়ে বুরো ধান আমাদের জন্য এক অমূল্য সম্পদ।

বিষয়টির গভীরতা উপলব্ধি করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের, পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহাবুবর রহমান বিপিএম, পিপিএম চট্টগ্রামস্থ কিশোরগঞ্জ এলাকার শ্রমিকদেরকে ফ্রি বাস যোগে কিশোরগঞ্জ পাঠানোর উদ্যোগ নেন।

পুলিশ কমিশনার নির্দেশনা অনুযায়ী উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মেহেদী হাসান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) এর তত্ত্বাবধানে বাকলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন, পিপিএম আজ ১৯ এপ্রিল বিকাল ৫ টায় বগার বিল ও শান্তিনগর এলাকা থেকে ৫ টি বাসে করে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অত্যন্ত সতর্কতার সাথে ১০০ জন শ্রমিককে কিশোরগঞ্জ পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। এস আলম গ্রুপের সহযোগিতায় ৪০টি বাস যোগে আর ও ১৪০০ শ্রমিককে পর্যায়ক্রমে কিশোরগঞ্জ অঞ্চলে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এসব শ্রমিক কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম অঞ্চলে বোরো ধান কাটার কাজ করবেন। উল্লেখ্য যে কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম অঞ্চলের এসব শ্রমিকগণ বছরে ১মাস ঐ অঞ্চলে ধান কাটার কাজ করেন, বাকি ১১ মাস চট্টগ্রাম অঞ্চলে বিভিন্ন এলাকায় কাজ করেন।

চট্টগ্রাম অঞ্চল থেকে কিশোরগঞ্জের বিভিন্ন হাওরে ধান কাটার জন্য প্রেরিত এসব শ্রমিকরা যেমন করে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন তেমনি তাদের অর্থকষ্ট ও মোচন হবে বলে আশা করা। এমনই মহতী উদ্যোগে স্বাগত জানিয়েছেন নগরবাসী, জন সাধারনের অভিমত সিএমপি কমিশনার একজন উদার ও বিশাল চিত্বের মানুষ, চট্টগ্রাম নগরের মানুষ সত্যিই সৌভাগ্যবান মেট্রো তে এমনই একজন পুলিশ কমিশনার পেয়ে।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *