কিংবদন্তি কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জন্মজয়ন্তীতে সিডনির প্রসিদ্ধ গ্রামীণ রেস্তোরাঁ ও প্রশান্তিকা বইঘরের ভিন্নধর্মী আয়োজন

স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে শিল্প সাহিত্যের অঙ্গনে প্রবাদপ্রতিম এক চরিত্র হুমায়ুন আহমেদ। বাংলা ভাষায় রচিত তারা গল্প-উপন্যাস, বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী যেমন বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেছে, তেমনি তার জাদুকরী হাতের ছোঁয়ায় বাংলা নাটক ও চলচ্চিত্র পেয়েছে ভিন্নমাত্রা। কথ্য ভাষার সাবলীল ব্যবহার ও চরিত্র নির্মাণে মুন্সিয়ানা হুমায়ূনকে এনে দিয়েছে স্বতন্ত্র এক পরিচিতি। অনেক সাহিত্যবোদ্ধা তার লেখনীর গভীরতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেও হুমায়ুনের পাঠকপ্রিয়তা ছিল আকাশচুম্বী।

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী সৃষ্টিশীল এই মানুষটির জন্ম জয়ন্তী আজ। ১৯৪৮ সালের ১৩ রা নভেম্বর নেত্রকোনার কুতুবপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন হুমায়ূন আহমেদ। হুমায়ূন আহমেদের জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে সিডনির বাঙালি পাড়া খ্যাত লাকেম্বায় প্রসিদ্ধ ‘গ্রামীণ রেস্তোরাঁ’ ও ‘প্রশান্তিকা বইঘর’ ভিন্নধর্মী আয়োজনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

বিভিন্ন সময় হুমায়ুনের লেখনীতে উঠে আসা মুখরোচক বাংলাদেশী খাবারের রেসিপি নিয়ে সপ্তাহব্যাপী বিশেষ আয়োজন রেখেছে গ্রামীণ রেস্তোরাঁ। ১৩ রা নভেম্বর থেকে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭ টা থেকে রাত ১১ টা পর্যন্ত হুমায়ূন আহমেদের বিশেষ রেসিপির খাবারগুলো পাওয়া যাবে এই রেস্তোরাঁয়। অপরদিকে গ্রামীণের পাদদেশে গড়ে ওঠা অস্ট্রেলিয়ার প্রথম বাণিজ্যিক বাংলা ভাষায় রচিত বইয়ের দোকান প্রশান্তিকা বইঘর, কিংবদন্তি এই কথাসাহিত্যিকের জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে বিশেষ ছাড়ে তার রচিত প্রায় সবগুলো বইয়ের ঢালী নিয়ে এসেছে পাঠকদের জন্য।

এখানে উল্লেখ্য দেশ থেকে হাজার মাইল দূরে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে সাহিত্যপিপাসু মানুষের মনের খোরাক যোগাতে সাহিত্য পাগল দুইভাই প্রশান্তিকার সম্পাদক আতিকুর রহমান শুভ ও তার ভাই কবি আরিফুর রহমান মিলে গড়ে তুলেছেন প্রশান্তিকা বইঘর। অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ দেশ অষ্ট্রেলিয়ায় এসে অধিকাংশ মানুষই যখন লাভজনক পেশা বা ব্যবসার কথা চিন্তা করেন তখন সদালাপী ও সদাহাস্য এই দুই ভাই বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে ছড়িয়ে দিতে চেয়েছেন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রথম প্রজন্মসহ এখানে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের মাঝে। তাদের এই প্রচেষ্টা সাধুবাদ কুড়িয়েছে সিডনির বাঙালি কমিউনিটির সাহিত্যপ্রেমী সকল মানুষের।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *