করোনা আতঙ্কে হাট বাজার বন্ধ।বিপাকে দুগ্ধ খামারিরাও

করোনাভাইরাস আতঙ্কে দেশের সব ধরণের শিশুখাদ্য, মিষ্টির দোকান ও সব বেকারি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। যে কারণে খামারিরা পড়েছেন বিপাকে। প্রতি লিটার দুধ ২০ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে। রাজধানীর কেরানীগঞ্জসহ আশপাশে আবাসিক এলাকায় গিয়ে যারা দুধ বিক্রি করেন তারা সর্বোচ্চ ৩৫ টাকা লিটার দাম পাচ্ছেন। রাজধানী ছাড়াও কেরানীগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, বিক্রমপুর, সাভার, গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায় রয়েছে অনেক ডেইরি ফার্ম। এসব ফার্মের দুধ বিশেষ করে বিভিন্ন খাদ্য কোম্পানি ও বেকারি ছাড়াও মিষ্টির দোকানে পাইকারি বিক্রি হতো। বেকারিতে প্রচুর পরিমাণে দুধ লাগত, তবে করোনার কারণে মিষ্টির দোকানসহ বন্ধ সব কিছু।দিনাজপুর ডেইরি ফার্মার এসোসিয়েশন জানান , দিনাজপুর জেলার ১৩টি উপজেলায় ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় ২ হাজার দুগ্ধ খামার রয়েছে। খামারে ৩টি থেকে শুরু করে ২শ’টি পর্যন্ত শাহীওয়াল, ফ্রিজিয়ান, জারসি, শংকরসহ উন্নত জাতের গাভী রয়েছে। খামার গুল অধিকাংশই সরকারি, বেসরকারি সংস্থা থেকে ঋণ নিয়ে খামার গড়ে তোলা, প্রতি খামার থেকে দৈনিক ২০ লিটার থেকে ৭০০ লিটার পর্যন্ত দুধ উৎপাদন হয় কিন্তু গত ২৬ মার্চ থেকে করোনা পরিস্থিতিতে হাটবাজার, দোকানপাট, লোক চলাচল বন্ধ করে দেয়ায় দুধ কেনা-বেচা বন্ধ হয়ে যায়। চট্টগ্রামেও খামারিদের বেহাল দশা।তারা বাজারে দুধ নিতে না পেরে ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করতে হচ্ছে যে কারণে তাদের অনেক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এতগুলো ক্ষতি এবং কর্মীদের বেতন নিয়ে বিপাকে পড়ে যান দুগ্ধ খামারিরা। খামারিরা সরকারের প্রণোদনা প্যাকেজের জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করছে। ০৪-০৪-২০২০ইং

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *