করোনায় একজন ইউএনও’র অসহায়ত্ব

করোনাভাইরাসের প্রেক্ষিতে গোটা পৃথিবী জুড়ে মৃত্যুর মিছিল। উন্নত বিশ্বের তুলনায় বাংলাদেশের পরিস্থিতি অনেকটা ভালো। আর দেশে যাতে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে না পড়ে সে জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ব্যাপক সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে মাঠ পর্যায়ে প্রশাসন ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছে।
এরপরও সাধারণ মানুষ ঘরে না থেকে হাটে-বাজারে দল বেঁধে ঘুরছে। সারা দেশে একই অবস্থা। এর ব্যতিক্রম নয় মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলা। এ অবস্থা দেখে ওই উপজেলার নির্বাহী অফিসার মো. মিজানূর হতাশা প্রকাশ করেছেন।
তিনি তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন, করোনা সম্পর্কে মানুষকে বুঝিয়ে বলতে বলতে মনে হচ্ছে মুখের ভাষাই শেষ। আর কতো বা কিভাবে বুঝিয়ে বললে মানুষের বোধোদয় হবে। চারিদিকে রোগ কোনো না কোনো ভাবে ছড়িয়ে পড়ছে। সকলের যেখানে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা সেখানে ঠিক তার বিপরীত। ঈদের খুশির মতো মানুষ এ বাড়ি ও বাড়ি দাওয়াত খেয়ে বেড়াচ্ছে আর বিকেল হলেই বাজারে উপছে পড়া ভিড়। এ যেন এক মিলন মেলা! কি হচ্ছে এ সব? মানুষ কি মৃত্যু দেখেও শিক্ষা নিবে না? চীন, স্পেন, ইতালি, আমেরিকা, বৃটেন, পাকিস্তান, ভারতের মতো পরাক্রমশালী দেশ যখন হিমশিম খাচ্ছে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায়। সেখানে আমাদের দেশের অবুঝ মানুষরা আনন্দে মেতেছে বাজার ঘাটে। সকলের কাছে সনির্বন্ধ অনুরোধ দয়া করে আপনি নিজ গৃহে অবস্থান করুন। নিজে বাঁচুন অন্যকে বাঁচতে সহায়তা করুন।০৩-০৪-২০২০ ইং

Categories:মতামত
Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *