করোনার চেয়েও ইজারার টাকা বড় কোরবানির হাট নিয়ে পুলিশের মানা শুনবে না চ,সি,ক!

চট্টগ্রাম নগর পুলিশ (সিএমপি) নগরীর তিনটি স্থানে কোরবানি পশুর হাট বসাতে আপত্তি জানিয়েছে। কিন্তু চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) তাতে কান না দিয়ে ওই তিন স্থানসহ নগরীর সাতটি স্পটে বসাতে চায় পশুর হাট।

সিএমপির বিশেষ শাখার উপ-কমিশনার আব্দুল ওয়ারিশ খান চসিক প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তার কাছে পাঠানো এক চিঠিতে সুনির্দিষ্ট তিনটি স্থানে কোরবানি পশুর হাট বসানোয় আপত্তি জানিয়ে এসব অস্থায়ী হাটের অনুমতি না দেওয়ার অনুরোধ জানান। এতে জানিয়ে দেওয়া হয় করোনাভাইরাসে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কোরবানি পশুর হাট নিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থানও।নগর পুলিশের আপত্তি উপেক্ষা করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে এবারও উক্ত স্থা গুলোতে কোরবানির পশুর অস্থায়ী হাট বসানোর জন্য ইজারা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে, সেগুলো হচ্ছে সল্টগোলা রেলক্রসিং, স্টিলমিল, পতেঙ্গা সিটি করপোরেশন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, কর্ণফুলী নতুন ব্রিজ, কমল মহাজন হাট, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডে টিকে গ্রুপের মাঠ এবং বড়পোল বন্দর মাঠ। গত বছর ছয়টি হাট বসলেও এবার বাড়ছে আরও একটি— বড়পোল বন্দর মাঠ। অন্যদিকে করোনার রেডজোন বন্দর-পতেঙ্গা এলাকার যে তিনটি হাট নিয়ে সিএমপি আপত্তি দিয়েছে, সেগুলো হচ্ছে স্টিল মিল, পতেঙ্গা সিটি করপোরেশন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ এবং বড়পোলে বন্দর কর্তৃপক্ষের খালি জায়গাটি।

এছাড়াও পতেঙ্গায় এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ চলছে। কোরবানির পশু রাখা হলে এই সড়ক দিয়ে আর যানবাহন চালানো যাবে না। এতে শহরে ভয়াবহ যানজট হবে। এছাড়া করোনায় সামাজিক দূরত্ব মানাও সম্ভব হবে না।’

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *