কম বেতনে সংসার চলে না, পদত্যাগ করতে চান ব্রিটিস প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

আমরা জানি বেতন কম হলে অনেকেই চাকুরি পরিবর্তন করে অন্য চাকুরিতে যোগ দেয়।কিন্তু যখন একজন প্রধানমন্ত্রী অভাবের কারণে মন্ত্রীত্ব চেড়ে দিতে চান তা কেমন লাগবে।তেমনি ঘটনা ঘটতে শুরু করেছে ব্রিটিস প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের।

ব্রিটিস প্রধানমন্ত্রী তার ঘনিষ্ঠমহলে অবস্থার কথা আলোচনা করেছেন।তিনি তাদের জানিয়েছেন,যে বেতন পান, প্রধানমন্ত্রী না থাকলে তার থেকে বেশি অর্থ আয় করতে পারতেন।বর্তমানে তার বেতন দেড় লাখ পাউন্ডের কাছাকাছি।অথছ তিনি যে পত্রিকায়,লেখালেখি করতেন তা থেকে তার আয় হতো ২লাখ ৭৫ হাজার পাউন্ড।এছাড়া সেমিনারে বক্তৃতা দিয়ে ১লাখ ৬০ হাজার পাউন্ড আয় করতেন।সেখানে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর সত্যিই তার উপার্জন কমে গেছে।

বরিস জনসন ছয় ছেলে মেয়ের পড়ালেখার খরচ ও প্রাক্তন স্ত্রীর খরচ চালাতে হিমসিম খাচ্ছেন।তাই তিনি প্রতিবেদনকে জানিয়েছেন যে তিনি সিদ্ধান্ত নিতে চলছেন।তিনি এও জানান এখনই নন, করোনা পরিস্থিতি ও ব্রেক্সিট সম্পর্কিত সমস্ত সমাধান করেই এ সিদ্ধান্ত নিবেন। খবর মেট্রো ইউকে ও টাইমস নাউ নিউজের।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *