ওমিক্রনের কারণে পিছিয়ে যাওয়া ঠিক হবেনা – প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন

ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়া রোধে বিদেশী শিক্ষার্থী ও দক্ষ কর্মীদের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সীমান্ত আগামী ১ লা ডিসেম্বর খুলে দেওয়ার পরিকল্পনা দুই সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেছেন, এটি একটি অস্থায়ী ও সতর্কতামুলক পদক্ষেপ এবং ওমিক্রনের কারণে আমাদের পিছিয়ে যাওয়া উচিত হবেনা।

অস্ট্রেলিয়ার সীমানা আগামী ১৫ ডিসেম্বর আবারও খোলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ফেডারেল সরকার প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে যে, ওমিক্রন ভেরিয়েন্টটি “নিয়ন্ত্রনযোগ্য” এবং “কিছু লক্ষণ দেখায় যে এটির কার্যকারিতা আশঙ্কার চেয়ে লঘু হতে পারে”। মিঃ মরিসন বলেছেন,”এটি পিছিয়ে যাওয়ার কারণ নয়। এটি ক্ষণিক বিরতির কারণ মাত্র।”

তিনি বলেন, বর্তমান গবেষণাগুলি নির্দেশ করে যে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টটি কোভিডের মাঝারি মাত্রার একটি স্ট্রেন।
“যদি এমন হয়, আমরা আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী এগিয়ে যেতে পারি,” জানিয়ে মিঃ মরিসন বলেছেন,”আমরা কেউই লকডাউনে ফিরে যেতে চাই না।”

স্বাস্থ্যমন্ত্রী গ্রেগ হান্ট বলেছেন যে, আগামীকাল থেকে আন্তর্জাতিক ছাত্র এবং দক্ষ অভিবাসীদের দেশে প্রবেশ করতে দেওয়া শুরু করার প্রাথমিক পরিকল্পনায় “দুই সপ্তাহের বিরতি” দেওয়া হচ্ছে। গতকাল রাতে “যথেষ্ট সতর্কতার সহিত” এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *