এ বছরও হচ্ছেনা ঐতিহাসিক জব্বারের বলি খেলা।

করোনায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর এ বছর করোনার প্রকোপ কমলেও চট্টগ্রামের লালদীঘির মাঠ উন্মুক্ত না হওয়ায় আয়োজন হচ্ছে না ঐতিহাসিক জব্বারের বলীখেলা ও মেলা।

বুধবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ১১টার দিকে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের এস রহমান হলে আবদুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও মেলা কমিটি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ২০১৯ সাল পর্যন্ত ১৯০তম আসর নিয়মিত অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম পৌরসভার পর সিটি করপোরেশন, স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন ও গণমাধ্যমের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় আবদুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও মেলা কমিটি প্রতি বছর ১২ বৈশাখ এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে এসেছে। কিন্তু করোনার ভয়াবহতায় গত দুবছর (২০২০ ও ২০২১ সাল) এই প্রতিযোগিতা ও মেলা স্থগিত করা হয়। বিগত ১১০ বছর ধরে এই বলীখেলা লালদীঘির মাঠেই অনুষ্ঠিত হয়ে আসছিল। ঐতিহাসিক এই লালদীঘির মাঠটি এখনও উন্মুক্ত করা হয়নি।

আবদুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও মেলা কমিটির সভাপতি চসিক কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী বলেন, মাটি ও মানুষের খেলা এই জব্বারের বলী খেলা। করোনার কারণে ২ বছর হয়নি। এ বছর হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এ বছরও আমরা আয়োজন করতে পারছি না। বহু ইতিহাসের সাক্ষী লালদীঘি মাঠেই বাঙালির মুক্তির সনদ ৬ দফা ঘোষণা করেছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ২০২০ সালে লালদীঘি ময়দানকে ঘিরে ঐতিহাসিক ছয় দফার স্মৃতি সংরক্ষণে ‘নগরীর লালদীঘি মাঠ সংস্কার ও সৌন্দর্যবর্ধন’ শীর্ষক প্রকল্প হাতে নেয় শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর। তাই মাঠটি উম্মুক্ত করা হয়নি। যদি এটি আগামী বছর সবার জন্য উম্মুক্ত করে দেওয়া হয় তাহলে আমরা আয়োজন করবো।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published.