একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি অস্ট্রেলিয়া শাখার স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি অস্ট্রেলিয়া শাখা স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে ২১সে মার্চ স্থানীয় এক রেস্টুরেন্টে আলোচনা সভা এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সংগঠনের সভাপতি ডাঃ একরাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জুয়েল তালুকদারের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য প্রদান করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব আবদুল মোমেন। অনুস্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাধারণ সম্পাদক জনাব কাজী মুকুল, প্রধান বক্তা হিসাবে শহীদ বুদ্ধিজীবি ডাঃ আলীম চৌধুরীর কন্যা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ নুজহাত চৌধুরী এবং বিশেষ বক্তা হিসেবে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রাক্তন প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরীন আফরোজ অনলাইনে যুক্ত হোন।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ বৈষম্যহীন, ক্ষুধা এবং দারিদ্র্যমুক্ত ‘সোনার বাংলা’ গড়ে তুলতে সক্রিয় ও দূরদর্শী নীতি গ্রহণ করেন। তাঁর আদর্শ অনুসরণ করে ১৯৯৬ সালে প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করছেন। তিনি আরো বলেন সম্প্রতি সিডিপি বাংলাদেশকে ২০২৬ সালে স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) তালিকা থেকে বের হয়ে যাওয়ার সুপারিশ করেছে। সমগ্র জাতির জন্য এটা অত্যন্ত আনন্দের এবং গর্বের। এ উত্তরণ এমন এক সময়ে ঘটল যখন আমরা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপন করছি, যখন আমরা মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্যাপনের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে।


অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী মুকুল প্রতিষ্ঠার পর থেকে ঘাতক দালালদের বিচারের দাবিতে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের অবদানের কথা শ্রদ্ধার সাথে স্বরণ করেন। অনুষ্ঠানের প্রদান বক্তা শহীদ বুদ্ধিজীবী কন্যা অধ্যাপিকা নুজহাত চৌধুরী সর্বস্তরে স্বাধীনতা বিরোধীদের রুখে দাঁড়ানোর প্রয়োজনে প্রবাসী বাঙালীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। বিশেষ বক্তা ব্য।রিস্টার তুরিন আফরোজ মানবতা বিরোধী অপরাধীদের বিচারের মুখোমুখি করার চলমান প্রক্রিয়া সম্পর্কে আলোকপাত করেন।

সভাপতির বক্তব্যে ডাঃ একরাম চৌধুরী ঘাতক মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সংগঠনের আগামী দিনের পরিকল্পনার বিস্তারিত বিবরণ উত্থাপন করেন এবং প্রবাসী নতুন প্রজন্মের কাছে নিজের দেশমাতৃকার ইতিহাস এবং ঐতিহ্যে তুলে ধরার কঠিন কাজটি দেশের প্রতি অগাধ ভালোবাসায় মসৃন হয়ে যায় বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে সংগঠনের সদস্য হারুনূর রশীদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আশফাক কে রহমান, সহসভাপতি হাসান ফারুক শিমুল রবিন এবং মাকসুদুর রহমান চৌধুরী সুমন বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মোল্লা, চট্টগ্রাম সিটি কলেজের সাবেক ভিপি ইফতেখার উদ্দিন , অস্ট্রেলিয়া কৃষক লীগের সভাপতি শাহে আলম এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ অস্ট্রেলিয়া শাখার সাবেক সভাপতি মোঃ সুজন সহ অন।ন্য সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী নতুন প্রজন্মের সদস্যদের মধ্যে ডঃ জাফর ইকবাল রচিত ছোটদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বইটি বিতরণ করা হয়। আলোচনা সভার শেষে সিডনির অত্যন্ত জনপ্রিয় ও পরিচিত শিল্পী পলাশ বসাক এর পরিবেশনায় দেশাত্মবোধক গান অনুষ্ঠানে ভিন্ন মাত্রা যুক্ত করে। পরিশেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের নৈশভোজে আপ্যায়িত করা হয়।

Tags:

এ বিভাগের আরো কিছু সংবাদ

মন্তব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *